1. admin@amarsylhetnews.com : admin2020 :
  2. zoshim98962@gmaiil.com : আমার সিলেট ডেস্ক : আমার সিলেট ডেস্ক
  3. amarsylhetnews@gmail.com : আমার সিলেট নিউজ : আমার সিলেট নিউজ
  4. editor@amarsylhetnews.com : Amar SylhetNews : Amar SylhetNews

    শুক্রবার, ১৬ এপ্রিল ২০২১, ০৭:৪৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনাম ::

আওয়ামীলীগ নেতা ফরহাদ বিরুদ্ধে জালিয়াতি করে জমি রেজিস্ট্রারি অভিযোগ

  • আপডেট সময় শনিবার, ২৭ মার্চ, ২০২১
  • ৫০ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার ।। নবীগঞ্জের কালিয়ার ভাঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ আহমেদ-এর বিরুদ্ধে অন্যের জমি জাল-জালিয়াতি করে বিক্রি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
ভৃয়া দলিল ও ভৃয়া ওয়ারিশান সনদ জাল করে অন্য জমি ক্রয় করে বিক্রয় ও করেছেন ভূমিদস্যু ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ প্রভাবশালী হওয়ায় তার বিরুদ্ধে কেউ কথা বলতে সাহস পাইচ্ছে না।

কালিয়ার ভাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের ওয়ারিশান সনদ জাল করে অন্য জমি নিজের নামে ও জাল দলিল তৈরী করে জমির মালিক কে নিঃসন্তান ও মৃত বানিয়ে অন্য জনের কাছে জমি বিক্রয় করে ।

জানা যায় নবীগঞ্জ উপজেলা কালিয়ার ভাঙ্গা ইউনিয়নের কালিয়ার ভাঙ্গা গ্রামের মৃত ইদ্রিস মিয়া ছেলে, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ আহমেদ ৩৮, উল্লেখিত জাল ওয়ারিশান সনদে দেওয়া হয়েছে ৩ নং ওয়ার্ডের মৃত দুর্জন রায়, পিতা বানেশ্বর রায়, ও দুর্জন রায় মারা যাওয়ার সময় উত্তরাধিকারী হিসেবে ৩ ছেলে কে ওয়ারিশান রাখিয়া মারা যান, দুর্গাচরন রায়, হরি চরন রায়, ও হরিপদ রায়, উল্লখ যে, হরি চরন রায়, এবং হরিপদ রায় নিঃসন্তান অবস্থায় মারা যান, দুর্গাচরন রায় মারা যাওয়ার সময় উত্তরাধিকারী ২ ছেলে কে ওয়ারিশান রাখিয়া মারা যান। যথাক্রমে, রণবীর রায় ও রতি রায়,

এই জাল ওয়ারিশান সনদ করে জমি নিজের নামে করে নিয়ে অন্যর কাছে বিক্রয় করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ আহমেদ, যার বাস্তবে কোন মিল নেই , কিন্তু এলাকা সূত্রে জানা যায় হরিচরন রায়, এর তিন ছেলে ও তিন মেয়ে, ছেলে রনবীর রায়, পরিমল রায়, রতি রায়, মেয়ে অনিমা রায়, পৃণিমা রায়, সুচন্দ্রা রায় (ইতি) ও হরিপদ রায়ের ছেলে মলয় রায় ও বিপ্লব রায় , তারা জীবিত প্রমাণ পাওয়া গেছে।
ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ আহমেদ ওয়ারিশান সনদে ৩ নং ওয়ার্ড মেম্বার আঃ নুর এর স্বাক্ষর ফরহাদ তিনি নিজেই দিয়েছেন সনদে, ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলামের স্বাক্ষর ও ফারহাদ জাল স্বাক্ষর দেয় যার প্রমাণ হিসেবে দৈনিক আমার হবিগঞ্জ পএিকার রিপোর্টারের হাতে আছে, জমির মালিক রনবীর রায়, ও রথী রায় ভানুলাল দাশ দৈনিক আমার হবিগঞ্জ এর সাংবাদিক কে জানান যখন করোনার প্রকোপটা বেশি ছিল সে সময় আওয়ামী লীগের নেতা সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ আহমেদ, আমাকে বলে যে দাদা তোমার ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি ও দুই কপি ছবি, তোমার আর তোমার ভাইয়ের দিও এই করোনায় সরকারে তোমাদের টাকা দিব, বলে তাদের জমি রেজিস্টারি করে নেয় এবং বিক্রয় করে , দলিলে তাদের নাম আছে ঠিক, তাদের তিন জনের মধ্যে কারও স্বাক্ষর নাই , তাদের স্বাক্ষর দলিলে একই হাতের তিন টি স্বাক্ষর,

বাস্তবে তারা স্বাক্ষর দিতে জানে না টিপসহি ব্যবহার করে,
নবীগঞ্জ উপজেলার কালিয়ার ভাঙ্গা মৌজার ১ দাগে ৩০ শতাংশ জমির মালিক বনবীর রায়, রথী রায়, ভানুলাল দাশ। অথচ আওয়ামীল নেতা ফরহাদ অন্যায় ও লোভে পড়ে ক্ষমতার অপব্যবহার, জাল জালিয়াতি ও প্রতারণার মাধ্যমে নবীগঞ্জ সদর রোজিস্ট্রি অফিসের মাধ্যমে ২০২০ সালের ১৪ জুলাই (দলিল নং-২৩৩৫) জমির খতিয়ান নং ১০২০,দাগ নং ১৩ ০৯, কালিয়ার ভাঙ্গা মৌজা ৩০ শতক জায়গা, জে এল নং ১৭৮,এস,এ খতিয়ান নং ৫০ এস, এ দাগ নং ৬৮৯,
বিক্রেতার নামে হাল দাখিলা, হাল রেকর্ড না থাকার পরও অন্যের সম্পত্তি ক্রয়-বিক্রয়ের অপরাধ করে।
আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ আহমেদ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, আমি এসব করতে রাজি হইনি এক দালাল আমারে সব কিছু মেইনটেইন করে দিছে, কিন্তু দালালে পরিচয় দিতে ফরহাদ রাজি হননি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর