সংবাদ শিরোনাম ::
হবিগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যানসহ চার নেতাকে আ’লীগ থেকে অব্যাহতি ইনাতগঞ্জে শালিস বৈঠকে পরিকল্পিত হামলা নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতিসহ ৫জন আহত লাখাইয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল ও পুরস্কার বিতরণ চুনারুঘাট যুব এসোসিয়েশনের ঈদ পূর্ণমিলনী ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ তাহিরপুরে প্লাবিত হয়ে প্রায় অর্ধশত গ্রাম যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন বাহুবল৭নং ভাদেশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় সভাপতি নির্বাচিত বশির বাহুবলে পুটিজুরী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগেরত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত মাদক ও জুয়ার বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সের ঘোষনা মধ্যনগর থানার ওসি জাহিদুল হক দোয়ারাবাজারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু

বাহুবলে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ ১নং স্নানঘাট ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে ৬ প্রার্থীর প্রচারণা ও তদবির অব্যাহত

  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর, ২০২১
  • ৭৩০ বার পড়া হয়েছে

কামরুল উদ্দিন ইমন ॥ হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার প্রত্যেক ইউনিয়নে আসন্ন নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করতে ৬ সম্ভাব্য প্রার্থীদের দৌড়ঝাপ শুরু হয়ে গেছে। আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন পেতে ১নং স্নানঘাট ইউনিয়নে ৪ জন প্রার্থী নৌকা প্রতীক পাওয়ার জন্য উর্ধতন মহলে রীতিমত দৌড়ঝাপ শুরু করেছেন।

তারা হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান ফেরদৌস আলম, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সুফি মিয়া খান, ডাঃহারুন অর রশীদ, সাবেক চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম ।এছাড়া এডভোকেট মুদ্দত আলী বিএনপি নেতা হলেও বিএনপি নির্বাচনে দলীয় প্রতীকে যাচ্ছে না বিধান তিনি স্বতন্ত্র নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। স্থানীয় সনাতন ধর্মালম্বী নেতা মনোরঞ্জণ রায় স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচন করতে পারেন বলে জানা গেছে।

এদিকে আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়নে কে এগিয়ে আছেন তা এ মূহুর্তে নিশ্চিত করে বলতে না পারলেও বর্তমান চেয়ারম্যান ফেরদৌস আলম উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি ছিলেন ও স্নানঘাট ইউনিয়ন ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ছিলেন। দলের প্রতি নিবেদিত থাকায় গত নির্বাচনে দল মনোনয়ন দেয়ায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।

তখন সময়ে জাতীয় পার্টি থেকে অনুপ্রবেশকারী হিসেবে পরিচিত আওয়ামীলীগ নেতা ও সাবেক চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে অবশেষে বিদ্রোহী প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করেন। ফলে দলের মাঝে তিনি কোণ্ঠাসা হয়ে থাকেন।এবার তিনি দলীয় মনোনয়ন ছাবেন।

১নং স্নানঘাট ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সভাপতি সুফি মিয়া খান একাদারে ৩ যোগ দরে সভাপতি দায়িত্ব পালন করে আসছেন। তিনি বলেন আমি দলীয় মনোনয়ন পেলেই কেবল নির্বাচন করবেন বলে যানান।

১নং স্নানঘাট ইউনিয়নে ইউনিয়নের ছাত্র লীগের সাবেক সহসভাপতি ও বর্তমান ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ হারুন অর রশীদ নৌকা প্রতীক পেলে নির্বাচন করবেন, নতুবা নয় বলে যানান।

এই ৪ নৌকা প্রতীকের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের মাঝে ফেরদৌস আলম ও ডাঃ হারুন অর রশীদ এগিয়ে আছেন।

তবে শেষ পর্যন্ত বর্তমান চেয়ারম্যানই আবারো নৌকা প্রতীক পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দলীয় দায়িত্বশীল সূত্র দাবী করেন। তবে মৎসজীবি সম্প্রদায়ের নেতা ডাঃ হারুন অর রশীদ নৌকা প্রতীক পেয়ে চমক দেখাতে পারেন।

অপরদিকে বিএনপি নেতা এডভোকেট মুদ্দত আলীও মৎসজীবি সম্প্রদায়ের বাসিন্দা হিসেবে তিনি স্বতন্ত্রভাবেই নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তিনিও চমক দেখাতে পারেন। আর হিন্দু সম্প্রদায়ের নেতা মনোরঞ্জন রায় স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচন করবেন বলে জানা গেছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর