সংবাদ শিরোনাম ::
হবিগঞ্জ সদর উপজেলা চেয়ারম্যানসহ চার নেতাকে আ’লীগ থেকে অব্যাহতি ইনাতগঞ্জে শালিস বৈঠকে পরিকল্পিত হামলা নবীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতিসহ ৫জন আহত লাখাইয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল ও পুরস্কার বিতরণ চুনারুঘাট যুব এসোসিয়েশনের ঈদ পূর্ণমিলনী ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠিত প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ তাহিরপুরে প্লাবিত হয়ে প্রায় অর্ধশত গ্রাম যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন বাহুবল৭নং ভাদেশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় সভাপতি নির্বাচিত বশির বাহুবলে পুটিজুরী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগেরত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ও কাউন্সিল অনুষ্ঠিত মাদক ও জুয়ার বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্সের ঘোষনা মধ্যনগর থানার ওসি জাহিদুল হক দোয়ারাবাজারে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে যুবকের মৃত্যু

শিক্ষকের ভূমিকায় উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ

  • আপডেট সময় বুধবার, ৬ এপ্রিল, ২০২২
  • ২৯ বার পড়া হয়েছে

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি:গতানুগতিক ধারার বাইরে এলেন সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ফারুক আহমদ।তিনি বুধবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে জাফলংয়ের বিভিন্ন বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন শেষে হঠাৎ করেই হাজির হন জাফলংয়ের গুচ্ছগ্রাম বে-সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

সেখানে গিয়ে তিনি অবতীর্ণ হন একজন শিক্ষকের ভূমিকায়। একে একে তিনি প্রত্যেকটি শ্রেণীকক্ষ ঘুরে পাঠদানও করান। ছাত্রছাত্রীরাও গভীর মনোযোগ সহকারে তার কথা শোনেন। তখন এমন একটা পরিবেশ তৈরি হয়েছিল যে, দেখে মনে হচ্ছিল তিনি শুধু উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানই নন-একজন দক্ষ শিক্ষকও।

পাঁচটি গ্রামের কোমলমতি শিশুদের প্রাথমিক স্তরে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করনের লক্ষ্যে যুব সমাজ কর্তৃক পরিচালিত গুচ্ছগ্রাম প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন শেষে গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ফারুক আহমদ বলেন, শিক্ষার মান ফিরিয়ে আনতে, শিক্ষার্থীদের মধ্যে নৈতিক মূল্যবোধ সৃষ্টি,

দেশ ও মানবপ্রেমে উদ্বুদ্ধ করা এবং সত্যিকারের মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের পক্ষ থেকে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের সদস্যরা বিভিন্ন সময় উপজেলার বিভিন্ন বিদ্যালয় গুলোতে শিক্ষার্থীদের ক্লাস নিবে।

তিনি আরও বলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারের লক্ষ্য, দেশে একজন মানুষও যেন নিরক্ষর না থাকে। দেশের মানুষকে উন্নত শিক্ষা দেওয়ার জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

অনেক মা-বাবা তার সন্তানদের পড়ালেখা করাতে পারেন না। তাই সরকার প্রাথমিক থেকে মাধ্যমিক পর্যন্ত শিক্ষা অবৈতনিক করে দিয়েছে। শিক্ষার্থীদের বিনামূল্যে বই দেওয়া হচ্ছে। ফলে মা-বাবার ওপর থেকে বই কেনার বোঝা কমেছে।

এ ছাড়া মেধাবী শিক্ষার্থীদের বৃত্তি দেওয়া হচ্ছে। শিক্ষায় আগ্রহ বাড়াতেও বিভিন্ন পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। এ সময় অবহেলিত এলাকায় প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার ব্যবস্থা করায় যুব সমাজের ভূয়সি প্রশংসা করে তিনি বলেন তরুণ প্রজন্মের কার্যক্রমের উপরই মাতৃভূমি বাংলাদেশের উন্নতি ও সমৃদ্ধি নির্ভর করছে।

বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীরা বলেন, চেয়ারম্যান স্যারের ক্লাস খুব ভালো লেগেছে। উনার কাছ থেকে আমরা অনেক নতুন বিষয় জানলাম। স্যার বলেছেন, আমাদের ভালো মানুষ হতে হবে। ভালো মানুষ পরিবার ও দেশের সম্পদ। সততা ও নিষ্ঠা আমাদের সফলতা অর্জনে সহায়ক ভূমিকা পালন করে। স্যারের কথায় আমরা অনুপ্রাণিত হয়েছি।

বিদ্যালয়টি পরিদর্শন কালে গোয়াইনঘাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ ফারুক আহমদ শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য, শিক্ষা, সংস্কৃতি ও মূল্যবোধ সম্পর্কে বিভিন্ন দিকনির্দেশনা দেন এবং বিদ্যালয়টি সরকারিকরণ ও অবকাঠামো উন্নয়নে উপজেলা পরিষদের সার্বিক সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে বলে জানান।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগের ধর্ম বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য ও গুচ্ছগ্রাম প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির উপদেষ্টা মোঃ ইমরান হোসেন সুমন, আব্দুল মান্নান, পুর্ব জাফলং যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক মোঃ কামাল হোসাইন,

 

গুচ্ছগ্রাম প্রাথমিক বিদ্যালয় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ করিম মাহমুদ লিমন, সহ-সভাপতি আব্দুল মান্নান, প্রধান শিক্ষক সোহেল আহমেদ, সদস্য রুবেল আহমদ, লিটন মিয়া, যুব নেতা গোলাম সারোয়ার, হোসাইন ইসহাক, ইসমাইল হোসেন, ইমরানসহ বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর